মুজিব শতবর্ষ

আতশবাজি আর ফানুসে রঙিন বন্দরনগরীর আকাশ

প্রকাশ: ১৮ মার্চ ২০২০ |

নিজস্ব প্রতিনিধি ■ বাংলাদেশ প্রেস

২০২০ সালের ১৭ মার্চ, মঙ্গলবার। ঘড়ির কাঁটায় ঠিক রাত ৮টা। চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিন সুইচ টিপতেই রাতের অন্ধকার ভেদ করে ঝলমলিয়ে উঠলো বন্দরনগরীর আকাশ। নগরের সব প্রান্তেই চলছিল আতশবাজির সেই খেলা, হাজার হাজার চোখ আলোকিত আকাশে। সেই আকাশে তখন যেন জ্বল জ্বল করছিল সদা-দীপ্তমান বঙ্গবন্ধুর মুখচ্ছবি।

মঙ্গলবার বন্দরনগরী চট্টগ্রামে রাত ৮টায় এভাবেই আতশবাজির মধ্য দিয়ে শুরু হয় জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী মুজিববর্ষের অনুষ্ঠান। হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মক্ষণের সেই মুহূর্তটিকে স্মরণীয়-বরণীয় করে রাখতে চট্টগ্রামের এমএ আজিজ স্টেডিয়াম থেকে শুরু হওয়া আতশবাজি ছড়িয়ে যায় সারা বন্দরনগরী।

নগরের সাতটি পয়েন্ট থেকে আকাশে বিকিরণ ছড়াতে থাকে শতশত আতশবাজি। এর ১৫ মিনিট পরেই আকাশ ছেয়ে যায় হাজার হাজার ফানুসে। এভাবেই দেশবাসীর কাছে ছড়িয়ে যাচ্ছে বাঙালির মহানায়কের জন্মক্ষণের ঐতিহাসিক মুহূর্তটি।

এদিকে মুজিববর্ষ উপলক্ষে বন্দরনগরীর বিভিন্ন জায়গায় দেয়ালচিত্র এঁকে বঙ্গবন্ধুর কর্মময় জীবনের কিছু অংশ চিত্রের মাধ্যমে জনগণের মাঝে তুলে ধরার প্রচেষ্টা করা হচ্ছে। মুজিববর্ষ উপলক্ষে দেওয়াল চিত্র আঁকা হয়েছে নগরের চট্টগ্রাম কলেজ, হাজী মুহাম্মদ মহসীন কলেজ, চট্টগ্রাম ক্লাব ও চট্টগ্রাম ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউট সংলগ্ন দেওয়ালে। যা ধারাবাহিকভাবে অব্যাহত থাকবে বলে জানিয়েছে সিটি করপোরেশন।

মঙ্গলবার (১৭ মার্চ) সকালে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকীতে ১০০ পাউন্ডের কেক কেটে মুজিববর্ষের বর্ণিল আয়োজনের সূচনা করেছে চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসন।

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশত বার্ষিকী উপলক্ষে সকালে চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগ সকালে দারুল ফজল মার্কেটস্থ দলীয় কার্যালয়ে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন করে। পরে সকাল ৯টায় কে.সি.দে রোডস্থ প্রধান নির্বাচনী কার্যালয়ে স্থাপিত বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন ও সকাল ১০টায় খতমে কোরআন, দোয়া ও মিলাদ এবং শিশু-কিশোরদের মাঝে মিষ্টি বিতরণ, বঙ্গবন্ধুর ৭ই মার্চের ঐতিহাসিক ভাষণ সম্প্রচার করা হয়।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস-২০২০ যথাযোগ্য মর্যাদা ও উৎসাহ-উদ্দীপনার সঙ্গে উদযাপন করেছে চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রলীগ, যুবলীগ, বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়, সাংবাদিক সংগঠন, পেশাজীবি সংগ্রঠন ও তিন সশস্ত্র বাহিনী তথা সেনা, নৌ ও বিমান বাহিনীর সদস্যরা।